ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল

ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল

ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল নিয়ে পুরো বিশ্বকে চমকে দিলো । আজকে এই ফোন নিয়েই আলোচনা করব । কি আছে এই ফোনে ।

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় ভিজিটর - নিওটেরিক আইটির পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম । আজকে আমি ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল নিয়ে আলোচনা করে এই আর্টিকেল সম্পন্ন করব । ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল সম্পর্কে আরো জানতে গুগলে সার্চ করুন - ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল লিখে অথবা NeotericIT.com এ ভিসিট করুন । আর্টিকেলের মূল বিষয় বস্তু সম্পর্কে জানতে পেইজ সূচি তালিকা দেখুন।

 

vivo drone camera phone  ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস  ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল

ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন নিয়ে পুরো বিশ্বকে চমকে দিলো । আজকে এই ফোন নিয়েই আলোচনা করব । কি আছে এই ফোনে । কি কি করা যাবে এই ফোন দিয়ে । 

ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন

ড্রোন ক্যামেরা ফোন : গোটা বিশ্বকে চমকে দিতে অবিশ্বাস্য এক প্রযুক্তি নিয়ে হাজির হয়েছে চায়না মোটর নির্মাণ কোম্পানি ভিভো।আপেল আর গুগলের মত জায়েন্ট কোম্পানি কে পেছনে ফেলে সবার আগে ফোনের ভেতরে ড্রোন ক্যামেরা ফোন নিয়ে হাজির হয়েছে ভিভো জাতির মধ্যে উন্মাদনার সৃষ্টি করেছে প্রযুক্তিপ্রেমীদের মাঝে ।  যে মুহূর্তে আপল ব্যস্ত তাদের আসন্ন ফোন আইফোন ১৪ নিয়ে আর গুগোল অ্যান্ডয়েড ১৩ নিয়ে ঠিক সেই মুহূর্তে ভিভো তাদের আসনটিতে ড্রোন যুক্ত করে স্মার্টফোনের জগতে স্পর্শ করেছে এক বিস্ময়কর মাইলফলক । স্মার্টফোন ক্যামেরা কিভাবেই বা কাজ করবে এতে কতটা শক্তিশালী এর ক্যামেরা আর কত টাকা গুনতে হবে সংযুক্ত স্মার্ট ফোনটির  আদ্যোপান্ত নিয়েই আমাদের আজকের বিশেষ আয়োজন । প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে পারছেন রঙের ব্যবহার পাখির চোখে গোটা গ্রাম কিংবা কোটা একটা শহর দেখতে কেমন তার নিখুঁতভাবে ক্যামেরাবন্দি করা যায় ড্রোন ক্যামেরা ফোন এর সাহায্যে । বর্তমান বাজারে সাধারণত একটি ড্রোনের  জন্য খরচ করতে হয় লক্ষাধিক টাকা । ব্যয়বহুল হওয়ায় সাদ্ধ্যের কারণে অনেকেই কিনতে  পারেন না শখের ড্রন । এবার  ড্রন নাকি নেই স্মার্ট ফোন দিয়ে তোলা যাবে ড্রোনের মতো ছবি এমনই এক যুগান্তকারী প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে চীনের স্মার্টফোন প্রস্তুতকারী সংস্থা ভিভো ।  গুগলের মতো বিশ্ব বিখ্যাত কোম্পানির মাথায় যে ভাবনা আসেনি সেই ভাবনা এবার এসেছে বিভোর মাথায় । মুঠোফোনের সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে ড্রোন ।  এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যার ভেতরের অংশে থাকবে দুই ক্যামেরাওয়ালা চারটে পাখাযুক্ত ফ্যান ।  ফোনে  নির্দেশ দেওয়া হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বেরিয়ে আসবে ড্রোনটি ।  হাতে থাকা ফোন  তখন হয়ে উঠবে ড্রোন নিয়ন্ত্রণের রিমোট ।  রিমোট ব্যবহার করে ওড়ানো যাবে  ড্রোনটি ।  আপেল গুগোল আর স্যামসাংয়ের জায়েন্ট  কোম্পানি কে টেক্কা দিতে অন্যান্য কোম্পানি গুলো আদাজল খেয়ে নেমেছেন । গ্রাহকদের হাতে আরো আকর্ষণীয় ফোন তুলে দিতে নতুন নতুন ফিচার এড করা হচ্ছে । তবে ফোন যেমনই হোক ব্যবহারকারীদের মূল আকর্ষণ এর কেন্দ্র ক্যামেরাকে ঘিরে। ক্যামেরা মুক্ত হলে ফোনের অনেক কমতি  এড়িয়ে যাওয়া যায় ।  গ্রাহকদের এই চাহিদার  উপরে এবার কাজ করেছে ভিভো । ক্যামেরার সাথে ড্রোন যুক্ত করে এখন গোটা বিশ্বে ভাইরাল ভিভো ।  বর্তমান স্মার্টফোনের বাজারে সেকেন্ডারি ডিসপ্লে, আল্ট্রা  ডিসপ্ল্‌ সুপার এমোলেড ডিসপ্লে, এমন কি পপআপ  ক্যামেরা সহ আরো বেশ কিছু ক্যামরার দেখা মিলল ও ভিভো রয়েছে  সম্পূর্ণ ভিন্ন পথে । সরাসরি ক্যামেরা ফাংশননে তারা ড্রোন  জুড়ে দিয়েছে যা ভিভো কোম্পানির জনপ্রিয়তাকে ইতিমধ্যে উচ্চতা নিয়ে গেছে । 

চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক কি আছে এই ক্যামেরাটিতে ,  আর কতটা শক্তিশালী এই ক্যামেরা । ফোনটিতে  কর্ড রিয়ার ক্যামেরা ইউনিট উপস্থিত থাকবে । এ ক্যামেরা গুলোর 200 মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর  ৩২ মেগা পিক্সেল আল্ট্রাওয়াইট লেন্স । ১৬ মেগা পিক্সেল হোয়াইট সেন্সর এবং 5 মেগাপিক্সেলের ডেপৎ সেন্সর হতে পারে ।  এছাড়া ফোনটিতে দেখা যেতে পারে একটি 64 মেগাপিক্সেল এর সেলফি ক্যামরা ।  শুধু ড্রোন ক্যামেরায় নয় ফোনটিতে অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে দেয়া হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 898 5জি  প্রসেসর সেইসাথে 12 জিবি পর্যন্ত রেম এবং 2 ভেরিয়েন্টে যথাক্রমে দেয়া হবে ২৫৬ জিবি এবং ৫১২ 2 জিবি স্টোরেজ । আর  অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে এই ফোনের এন্ড্রয়েড ১২ পাওয়া যাবে । ফোনটিকে  দীর্ঘক্ষন সচল  রাখতে 6 হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ক্যাপাসিটির  ব্যাটারি দেওয়া হতে পারে ।  এই ফোন একবার চার্জে সর্বনিম্ন ৩৬  ঘন্টা  ব্যাকআপ দেবে । আর এই ব্যাটারিকে  দ্রুততম সময়ে চার্জ দিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৬৫ ওয়াট  ফাস্ট চার্জিং ক্ষমতাসম্পন্ন একটি চার্জার । কত হবে এই যুগান্তকারী ভিভোর নতুন ফোনের দাম ? এখনো বাজারে না আসায় এর দাম নিয়ে এখনও স্পষ্ট জানায়নি ভিভো । তবে নির্ভরযোগ্য কিছু মাধ্যম থেকে জানা গেছে ফোনটির  দাম প্রায় ১১৭০ ডলার । বাংলাদেশি টাকায় প্রায় এক লক্ষ টাকা । তবে কবে আসবেন ড্রোন ক্যামেরা ফোন যুক্ত এই ফোনটি এই নিয়ে  এখন স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের মাঝে চলছে আলোচনা । কত বছর এই প্রযুক্তির প্যাটার্ন জমা করেছে ভিভো ?  ফোন কবে নাগাদ বাজারে আসতে পারে সে বিষয়ে কিছু জানায়নি সংস্থা । তবে এটি শুধু কনসার্ট মডেল হিসেবে প্রকাশ করা হয় তা স্মার্টফোনের জগতে তা আলোড়ন সৃষ্টি করবে তা বলাই বাহুল্য । ভিভো কোনোভাবেই ফোন নির্মাণ করা থেকে পিছিয়ে গেলে অন্য যে কোন কোম্পানির নিয়ে আসবে ড্রোন ক্যামেরা ফোন । যা  হার মানাবে বিশ্বের সকল ফোনের  কে । 


আপনি আসলেই নিওটেরিক আইটির একজন মূল্যবান পাঠক । ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ । এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবস্যয় আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন । আরো পড়ুনঃ -

ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল, ভিভো ড্রোন ক্যামেরা ফোন প্রাইস | ড্রোন ক্যামেরা মোবাইল
পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
কোন মন্তব্য নেই
এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার মন্তব্য জানান

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন - অন্যথায় আপনার মন্তব্য গ্রহণ করা হবে না ।

comment url