সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম

পাসপোর্ট এর আবেদন করেছেন? এবার নিশ্চয়ই জানতে চান আপনার আবেদনকৃত পাসপোর্ট কখন হাতে পাবেন! জানতে হলে পড়তে হবে। জেনে নিন পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় অতিথি - নিওটেরিক আইটি থেকে আপনাকে স্বাগতম । আপনি নিশ্চয় সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম সম্পর্কিত তথ্যের জন্য নিওটেরিক আইটিতে এসেছেন । আজকে আমি সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করে এই আর্টিকেল সম্পন্ন করব । সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম সম্পর্কে আরো জানতে গুগলে সার্চ করুন - সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম লিখে অথবা NeotericIT.com এ ভিসিট করুন । এই আর্টিকেলের মূল বিষয় বস্তু সম্পর্কে জানতে পেইজ সূচি তালিকা দেখুন।

পাসপোর্ট এর আবেদন করেছেন? এবার নিশ্চয়ই  জানতে চান আপনার আবেদনকৃত পাসপোর্ট কোন ধাপে আছে বা কখন হাতে পাবেন! জানতে হলে পড়তে হবে। আজকে আপনাদের জানাবো ২০২৩ সালে সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম। কিভাবে দালাল ছাড়া সহজেই ঘরে বসে অনলাইনে পাসপোর্ট চেক করবেন।

সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ -  দালাল ছাড়া  অনলাইনে পাসপোর্ট চেক  - passport check online


সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ -  দালাল ছাড়া  অনলাইনে পাসপোর্ট চেক  - passport check online 

পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩

এই ২০২৩ সালে অনলাইনে পাসপোর্ট চেক করা একেবারে হাতের নাগালে। তবে অনলাইনে আপনার পাসপোর্ট এর তথ্য বা অবস্থা জানার জন্য আপনাকে প্রথমে একটা বিষয় খেয়াল রাখতে হবে যে আপনি কোন ধরনের পাসপোর্ট তথ্য যাচাই করতেন চান? কেননা বর্তমানে পাসপোর্ট সাধারণত দুই ধরনের হয়ে থাকে, ই-পাসপোর্ট এবং MRP পাসপোর্ট। আর এই দুই ধরনের পাসপোর্ট এর জন্য সরকারি আলাদা দুইটা ওয়েবসাইট রয়েছে। সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম জানতে আপনি শেষ অব্দি অপেক্ষা করুন । 

আজকে আমরা আলোচনা করবো:

  • MRP পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম
  • E-Passport চেক করার নিয়ম

প্রথমে দু-লাইনে জেনে নিই এই দুই ধরনের পাসপোর্ট নিয়ে। এগুলো কি এবং কিভাবে কাজ করে!

MRP Passport কি? কিভাবে কাজ করে?

MRP এর পুর্ণরূপ হলো Machine Readable Passport. এই পাসপোর্টই বর্তমানে প্রচলিত আছে। এটা সম্পুর্ণ ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে কাজ করে অর্থ্যাৎ কর্মকর্তারা ইমিগ্রেশনের সময় ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে যাচাই বাছাই করে।


E-Passport কি? কিভাবে কাজ করে?

E-Passport হলো ইলেক্ট্রনিক পাসপোর্ট। এই প্রযুক্তি যেহেতু সম্পুর্ণ নতুন এবং অপরিচিত তাই এই বিষয়ে অল্পবিস্তর আলোচনা করা যাকঃ

এটি সম্পূর্ণ  ডিজিটাল পদ্ধতিতে কাজ করে। অর্থ্যাৎ ইমিগ্রেশনের সময় তথ্য যাচাই-বাছাই কার্যক্রম ডিজিটাল পদ্ধতিতে সম্পন্ন করা হয়, এক্ষেত্রে কর্মকর্তারা শুধু সীল প্রদান করেন। বর্তমানে এমআরপি পাসপোর্টের মতো ই-পাসপোর্টের বইও একই। 

তবে শুধুমাত্র পাসপোর্টের বইয়ের প্রথম যে দুটি পৃষ্টায় ভ্রমণকারীর তথ্য থাকে, ই-পাসপোর্টে তা থাকবে না। বরং সেখানে প্লাস্টিকের তৈরি একটি কার্ড ও অ্যান্টেনা থাকবে। সেই কার্ডের ভেতরে চিপ থাকবে, যেখানে পাসপোর্ট বাহকের সব তথ্য সংরক্ষিত থাকবে।

সরকারি ডাটাবেজে থাকবে পাসপোর্টধারীর তিন ধরণের ছবি, ১০ আঙ্গুলের ছাপ ও চোখের আইরিশ।

ফলে যেকোনো দেশের কর্তৃপক্ষ সহজেই ভ্রমণকারীর সম্পর্কে সব তথ্য জানতে পারবেন।

E-Passport এর সুবিধা:

ই-পাসপোর্টের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, খুব দ্রুত ও সহজে ভ্রমণকারীরা যাতায়াত করতে পারবেন। ই-পাসপোর্টধারীরা আলাদা ই-গেট ব্যবহার করে যাতায়াত করবেন। এর ফলে বিমানবন্দরে তাদের ভিসা চেকিংয়ের জন্য লাইনে দাঁড়াতে হবে না। এর মাধ্যমে দ্রুত তাদের ইমিগ্রেশন সম্পন্ন হয়ে যাবে। একজন ভ্রমণকারী যখন ই-পাসপোর্ট ব্যবহার করে যাতায়াত করবেন,তখন সরকারি ডাটাবেজ থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তার যাবতীয় প্রয়োজনীয় তথ্য দেখতে পারবে।

ই-গেটের নির্দিষ্ট স্থানে পাসপোর্ট রেখে দাঁড়ালে ক্যামেরা ছবি তুলে নেবে, ফিঙ্গারপ্রিন্ট যাচাইয়ের ব্যবস্থাও আছে। সব ঠিক থাকলে ই-পাসপোর্টধারী ইমিগ্রেশন পেরিয়ে যেতে পারবেন।

তবে কোন গরমিল থাকলে লালবাতি জ্বলে উঠবে। তখন সেখানে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। কারো বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা থাকলে, সেটিও সঙ্গে সঙ্গে জানা যাবে। ইন্টারপোলসহ বিমান ও স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ এসব তথ্য যাচাই করতে পারে।

এখানে ৩৮টি নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য থাকায় ই-পাসপোর্ট জাল করা সহজ নয়।


এমআরপি আর ই-পাসপোর্টের পার্থক্য কী?

মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট(MRP) এবং E-Passport এর মধ্যে পার্থক্য হলো অনেকটা চেকবই আর এটিএম কার্ডের মতো। অর্থ্যাৎ একটা ম্যানুয়াল আরেকটা অটোমেটিক।

চেকবই এ স্বাক্ষর যাচাইবাছাই করে ব্যাংক কর্মকর্তারা অনুমোদন করার পরে লেনদেন সম্পন্ন করেন। কিন্তু এটিএম কার্ড দিয়ে যে কেউ সহজেই যাবতীয় লেনদেন করতে পারেন।

ঠিক তেমনি MRP পাসপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা তথ্য যাচাই বাছাই করে পাসপোর্টে সিল দিয়ে থাকেন।

কিন্তু E-Passport ধারী যন্ত্রের মাধ্যমে নিজে থেকেই ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করতে পারেন। তবে পরবর্তী ধাপে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারাই পাসপোর্টে আগমণ অথবা বর্হিগমন সিল দেবেন।

দালাল ছাড়া অনলাইনে পাসপোর্ট চেক

দালাল ছাড়া অনলাইনে পাসপোর্ট চেক করার জন্য যা করতে হবে সব আপনাকেই করতে হবে । তবে এইটাতেমন বেশি কঠিন কাজ নয়  । আপনি খুব সহজে নিজের ডিভাইস মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে আপনার MRP পাসপোর্ট অথবা ই-পাসপোর্ট দুইটাই চেক করতে পারবেন । নিছে দুইটা পদ্ধতির অনলাইনে স্ট্যাটাস চেক করার জন্য কিভাবে কি করতে হবে তা আলোচনা করা হলো । 

কিভাবে MRP পাসপোর্ট চেক করবো?

ঘরে বসে MRP পাসপোর্ট চেক করতে হলে আপনাকে যেকোনো ব্রাউজার থেকে http://passport.gov.bd/OnlineStatus.aspx ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ -  দালাল ছাড়া  অনলাইনে পাসপোর্ট চেক  - passport check online


 তারপর নিন্ম লিখিত নিয়ম অনুসরণ করুণঃ

  •  Application Status এ ক্লিক করুন।
  •  প্রথম ঘরে ডেলিভারি স্লিপ এ থাকা Enrolment Number লিখুন
  • দ্বিতীয় ঘরে আপনার পাসপোর্ট আবেদন অনুযায়ী জন্মতারিখ প্রদান করুন 
  • ক্যাপচা পূরণ করুন
  • SEARCH বাটনে ক্লিক করুন

এবার আপনাকে আপনার এমআরপি/MRP পাসপোর্ট এর অবস্থা এবং কোন ধাপে আছে তা দেখাবে।


এবার কথা বলা যাক ই-পাসপোর্ট চেক করা নিয়ে। বলে রাখা ভালো যে ই-পাসপোর্ট এখনো তেমন জনপ্রিয়তা পায় নি।


কিভাবে E-Passport চেক করবো?

ঘরে বসে হাতে থাকা মোবাইল বা পিসিতে সহজেই E-Passport চেক করার জন্য যেকোনো ব্রাউজার থেকে ভিজিট করুন https://www.epassport.gov.bd/authorization/application-status 

সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ -  দালাল ছাড়া  অনলাইনে পাসপোর্ট চেক  - passport check online


তারপর নিম্নলিখিত ধাপ গুলো অনুসরণ করুনঃ

  • প্রথমেই দুটো বক্স দেখতে পাবেন, Online Registration ID এবং Application ID
  • এখানে Application ID এর ঘরে ডেলিভারি স্লিপ এ থাকে নাম্বার লিখুন
  • নিচের ঘরে পাসপোর্ট আবেদন অনুযায়ী জন্মতারিখ প্রদান করুন
  • I am Human সিলেক্ট করুন, ক্যাপচা আসলে পূরণ করুন
  • সবশেষে Check বাটনে ক্লিক করুন 

এবার আপনাকে আপনার ই-পাসপোর্ট এর অবস্থা এবং কোন ধাপে আছে তা দেখাবে।


পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩:

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে পাসপোর্ট চেক করার ক্ষেত্রে আমরা উপরে উল্লিখিত পদ্ধতিগুলোই অনুসরণ করতে পারি। কিন্তু আমরা চাইলে এসব ওয়েবসাইটে না গিয়ে মোবাইল এসএমএস এর মাধ্যমে সহজেই আমাদের পাসপোর্ট এর অবস্থা জানতে পারি।

মোবাইল এসএমএস এর মাধ্যমে পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম:

লাইনে না দাড়িয়ে বা এসব ওয়েবসাইটের ঝামেলায় না গিয়ে আরেকটু সহজ ভাবে আমরা হাতে থাকা একেবারে নরমাল মোবাইল সেট দিয়েই আমাদের পাসপোর্টের যাবতীয় তথ্য যাচাই করে নিতে পারি। নিচে ধাপে ধাপে তা উল্ল্যেখ করা হলোঃ

  1. প্রথমে আমাদের মোবাইলের এসএমএস অপশনে যেতে হবে
  2. এরপর লিখতে হবে: ERP লিখে স্পেস দিয়ে তারপর আপনার Application ID ( উদাহরণঃ ERP 4726339011)
  3. এসএমএস টি পাঠাতে হবে 16445 নাম্বারে।
  4. ফিরতি এসএমএস এ আপনার পাসপোর্টের যাবতীয় তথ্য দেয়া হবে।

পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ দেখে আপনার কোন উপকার হবে না যদি ইতিমধ্যে আপনি পাসপোর্টের জন্য আবেদন করে না থাকেন । আপনি নিজেই চাইলে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারেন । নিছের পয়েন্টগুলো ফলো করলেই আপনি খুব সহজেই দালাল ছাড়া পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন । 

দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম:

আপনি চাইলে খুব সহজে পাসপোর্ট করতে পারবেন দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম দেখে ।  বর্তমানে ই-পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে দালাল কিছুই করতে পারবে না। কারণ এখানে ছবি তোলা, ফিঙ্গারপ্রিন্ট, চোখের আইরিশ নেওয়া ছাড়া পুরো প্রক্রিয়া অনলাইনেই সম্পন্ন হয়। তাই এখানে দালালের কিছুই করার নেই।

অনলাইনে পাসপোর্ট এর অবস্থা যাচাই করতে কোনোরকম ফি প্রদান করতে হয় না। তাই এক্ষেত্রে ঘুষ বা অন্যকোনো উপায় অবলম্বন করা বোকামি ছাড়া কিছুই নয়।

যারা নতুন পাসপোর্ট করতে চাচ্ছেন বা এই বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন, নিচে তাদের কিছু প্রশ্নের সংক্ষেপে উত্তর দেয়ার চেষ্টা করছি। প্রয়োজনে পরে এইসব প্রশ্ন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।


পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে?

২০২২ সালে দেয়া সর্বশেষ নির্দেশনা অনুযায়ী ই-পাসপোর্ট করতে জন্মনিবন্ধন সনদপত্র, জাতীয় পরিচয়পত্র, নাগরিক সনদপত্র এবং পেশা প্রমানের কাগজ লাগে। তবে ই-পাসপোর্ট আবেদনকারি ব্যাক্তির পেশা, বয়স, বৈবাহিক অবস্থা ইত্যাদির উপর নির্ভর করে কি কি লাগবে।

MRP পাসপোর্ট থেকে E-Passport কিভাবে করবো?

MRP Passport থেকে E-Passport করার কোনো পদ্ধতি নেই। MRP Passport থাকলেও E-passport এর জন্য আপনাকে নতুন করে আবেদন করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার MRP পাসপোর্টটি কোনো কাজে আসবে নাহ। শুধু আপনি আপনার পুরাতন পাসপোর্টটির তথ্যগুলো হুবহু নতুন আবেদনে উল্ল্যেখ করে দিতে পারেন।


পাসপোর্ট আবেদন কি ভাবে করতে হয়?

পাসপোর্টের আবেদন আপনি ঘরে বসেই করতে পারবেন তাও দালাল ছাড়া। পাসপোর্ট করার জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন যদি আপনার একটি ফোন বা কম্পিউটার থাকে।

পাসপোর্ট আবেদন ফরম পূরণ করার জন্য সরাসরি যেকোনো ব্রাউজার থেকে ভিজিট করুন ( https://www.epassport.gov.bd/onboarding )

সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ -  দালাল ছাড়া  অনলাইনে পাসপোর্ট চেক  - passport check online


এখানে আপনি বাংলাদেশ থেকে আবেদন করলে “YES” সিলেক্ট করুন। তারপর প্রথম বক্সে আপনার জেলা নির্বাচন করুন। দ্বিতীয় বক্সে আপনার থানা সিলেক্ট করুন এবং “Continue” বাটনে ক্লিক করুন।

এবার আপনার স্ক্রিনে এই পেজ আসবে:

সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ -  দালাল ছাড়া  অনলাইনে পাসপোর্ট চেক  - passport check online


এই পেজের বক্সে আপনার ইমেইল লিখতে হবে এবং “I am Human” ক্যাপচা পূরণ করে “Contine” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
এরপর আপনাকে আপনাকে একটি পাসওয়ার্ড দিতে হবে। এরপর ধাপে ধাপে জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী আপনার তথ্যগুলো প্রদান করতে হবে এবং “Continue” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
এপর্যায়ে পাসপোর্ট ওয়েবসাইট থেকে আপনার ইমেইলে একটি ভেরিফিকেশন লিংক পাঠাবে। আপনাকে সেই লিংকে ক্লিক করে আপনার ইমেইলটি ভেরিফাই করতে হবে।
এবার আপনার এ্যাকাউন্ট আবেদনের জন্য প্রস্তত।
এবার ক্রমান্বয়ে নিম্নোক্ত ধাপগুলো অনুসরণ করুন:

  • এখন আপনার নাম, প্রয়োজনীয় তথ্য ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিন এবং Save and Continue তে ক্লিক করুন।
  • এরপর আপনার আগে কোন পাসপোর্ট থাকলে Yes দিন আর না থাকলে “No, I don’t have any previous passport” সিলেক্ট করে “Save and Continue” এ ক্লিক করুন।
  • আপনার Present Address ও Permanent Address লিখুন। যদি বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা একই হয়, “Present address is the same as Permanent” বক্সে টিক দিন।
  • তারপর জাতীয় পত্র অনুযায়ী যথাক্রমে আপনার পিতা-মাতার নাম এবং স্বামী বা স্ত্রীর নাম লিখুন। জরুরী ভিত্তিতে যোগাযোগের জন্য আপনার পরিবারের কারো নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর দিন।
  • এবার আপনার পাসপোর্টের ধরন, পাতা ও ডেলিভারী সাধারণ বা জরুরী বাছাই করুন।
  • সবশেষে আপনার সব তথ্য পূনরায় যাচাই করে,  Submit বাটনে ক্লিক করে আপনার আবেদন শেষ করুন।

আবেদন সম্পন্ন হলে প্রিন্ট করার জন্য আপনি ২টি পৃষ্ঠা পাবেন।

  • Application Summary,
  • Online Registration Form. 

আপনি চাইলে এগুলো প্রিন্ট করে নিতে পারেন বা PDF ফাইলে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন।

সহজে MRP পাসপোর্ট বা ই-পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা এখানেই শেষ হলো। আরো কোনো প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। আপনার প্রশ্ন আমাদের লিখতে উৎসাহ দেয়। 


বিঃদ্রঃ - এই পোস্টের কিছু ছবি গুগল ফেইসবুক ও বিভিন্ন সাইট থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে । কারো কোনো আপত্তি থাকলে কমেন্ট করুন - ছবি রিমুভ করে দেয়া হবে।

আপনি আসলেই নিওটেরিক আইটির একজন মূল্যবান পাঠক । সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ । এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবস্যয় আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন ।

সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম, সহজেই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম ২০২৩ । দালাল ছাড়া ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম

পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
কোন মন্তব্য নেই
এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার মন্তব্য জানান

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন - অন্যথায় আপনার মন্তব্য গ্রহণ করা হবে না ।

comment url
শীতের নতুন জ্যাকেট ডিজাইন দেখুন
-->